Lawbd24
ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ ও প্রতিকার (বিস্তারিত)।
Friday, 10 May 2024 00:00 am
Lawbd24

Lawbd24

ডেঙ্গু জ্বরঃ

এটি সাধারণত অন্যন্য জ্বরের মত। কিন্তু কিছু বৈশিষ্টের কারনে এই জ্বর আলাদা। এডিস নামক এক ধরনের মশার কামড়ের কারণে এই জ্বর দেখা দেয়। ডেঙ্গু জ্বর যদিও প্রাণঘাতী নয় তবুও সময়মত চিকিৎসা না নিলে এই রোগে মৃত্যুর আশংকা থাকে। তাছাড়া সাম্প্রতিক সময়ে এটি ভয়াবহ আকার ধারণ করছে। জ্বরে আক্রান্তদের অনেকের শরীরে ডেঙ্গুর মারাত্মক ভেরিয়েন্ড শনাক্ত করা হয়েছে। আর এজন্য ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণ, প্রতিকার প্রতিরোধ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে রাখা ভালো।

ডেঙ্গু জ্বরের লক্ষণঃ

০১। জ্বর ১০০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের উপরে থাকতে পারে(অনেক সময় এর নিচে তাপমাত্রায়ও ডেঙ্গু জ্বর শনাক্ত হয়েছে)
০২। সাধারণত জ্বরের / দিনের পর ডেঙ্গু জ্বরের পূর্নাঙ্গ লক্ষণগুলো দেখা যায়।
০৩।  শরীরে রিংয়ের মত ফুসকুড়ি দেখা দিতে পারে।
০৪। জ্বরে মনে হয় হাড় ভেঙ্গে যাচ্ছে তাই অনেকে হাড়ভাঙা জ্বরও বলে থাকে।
০৫। ডেঙ্গু জ্বরের মারাত্মক পর্যায়ে শরীরের বিভিন্ন স্থান থেকে রক্ত পড়তে পারে।
০৬। জ্বরের এক পর্যায়ে পাতলা পায়খানা হতে পারে।
০৭। মারাত্মক ডেঙ্গু জ্বরে পায়খানা কালো হতে পারে।
০৮। শিশুর ডেঙ্গু জ্বরের কারণে নিস্তেজ হয়ে পড়তে পারে।

ডেঙ্গু জ্বরের প্রতিকারঃ

সাধারণত ডেঙ্গু জ্বরের আলাদা কোন ঔষধ দেওয়া হয় না। উপসর্গ অনুযায়ী ডাক্তার ঔষধ দিয়ে থাকে। জ্বর নিরাময়ের জন্য প্যারাসিটামল জাতীয় ঔষধ ব্যতীত অন্য কোন ঔষধ খাওয়া ঠিক নয়। তাছাড়া শরীর থেকে রক্তক্ষরণ হলে কিংবা কালো পায়খানা হলে ডেঙ্গু জ্বরের মারাত্মক লক্ষণ এক্ষেত্রে রোগীকে তাড়াতাড়ি হাসপাতালে ভর্তি করা উচিত। শিশুর ডেঙ্গু হলে বাড়তি যত্নে  নিতে হবে, স্বাভাবিক খাবার খাওয়াতে হবে। পাতলা পায়খানা হলে স্যালাইন অথবা ডাবের পানি প্রচুর পরিমানে দিতে হবে। ডেঙ্গু জ্বরের মারাত্মক পর্যায়ে মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে তাই, অবহেলা না করে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে।শিশুর ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হলে বাড়তি যত্ন নিতে হবে দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। ডেঙ্গু জ্বর কমার / দিন খুব গুরুত্বপূর্ণ কারণ জ্বর আবার শুরু হতে পারে।

ডেঙ্গু জ্বর প্রতিরোধঃ

যে কোন রোগের জন্য প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধে গুরুত্ব দিতে হবে। কারণ অসুস্থ হল দেহ মন, সময় আর্থিক সব দিকেই ক্ষতি। অতএব অসুস্থ হওয়া পর ঔষধ খাওয়ার চেয়ে অসুস্থ যাতে না হয় তার দিকে জোর দিতে হবে। ডেঙ্গু জ্বরের বাহক এডিস মশা যাহাতে জন্ম না নেয় তার জন্য বাড়ির আশপাশ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে হবে। এডিস মশা যেহেতু দিনের বেলা কামড়ায় তাই দিনের বেলা ঘুমানোর সময় মশারি দিয়ে ঘুমাতে হবে। ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত ব্যক্তিকে সারাক্ষণ বিশ্রামে রাখতে হবে।