সেনাবাহিনীর সদস্যদের অভ্যাস

সেনাবাহিনীর সদস্যদের ০৫ টি অভ্যাস আপনার জীবন বদলে দিবে।

সেনাবাহিনীর সদস্যদের মাঝে আত্মবিশ্বাস, চেহারায় লাবণ্য, আকর্ষণীয় কথাবার্তা, চটপটে ভাব, দৃঢ়তা, সাহসিকতাসহ অনেক লক্ষণ রয়েছে। যার কারণে রাস্তাঘাটে বা অফিস আদালতে যে কোন জায়গায় সেনাবাহিনীর সদস্যদের আলাদা ভাবে শনাক্ত করা যায়।

এখন প্রশ্ন হল সেনাবাহিনীর সদস্যরা এমন কি জীবনযাপন করে যার কারণে সাধারণ মানুষের চাইতে তাদের আলাদা দেখায়। সেনাবাহিনীর সদস্যদের মত নিয়ম কানুন অনুসরণ করলে আপনি কি তাদের মত গুণাবলির অধিকারী হতে পারবেন ? হ্যাঁ আজকে সেনাবাহিনীর সদস্যদের ০৫ টি অভ্যাস নিয়ে আলোচনা করব যা অনুসরণ করলে আপনিও তাদের মত গুণাবলির অধিকারী হতে পারবেন।

০১। প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠাঃ

সেনাবাহিনীর সদস্যরা প্রতিদিন খুব সকালে ঘুম থেকে উঠেন। যার ফলে তারা সুন্দর সকালের মনোরম পরিবেশ উপভোগ করেন। তাছাড়া সকালে ঘুম থেকে উঠেই নিচের বিছানা পরিপাটি করে রাখেন যার ফলে সকালেই তাদের মানসিক শৃঙ্খলার মনোভাব তৈরি হয় এবং সারাদিন অব্যাহত থাকে। তাই জীবনে শৃঙ্খলা চাইলে আপনিও সকালে এই কাজ করুন।

০২। প্রতিদিন রুটিন অনুযায়ী জীবনযাপনঃ

সেনাবাহিনীর সদস্যরা সারাদিন রুটিন মাফিক চলেন। সকালের পিটি, প্যারেড,নাস্তা করা, ক্লাস এবং দুপুরে খেলাধূলা সবই রুটিন অনুযায়ী করেন। যার ফলে তারা কঠিন কাজগুলো সহজেই করতে পারেন। তাই আপনি যদি রুটিন মাফিক জীবন যাপন এবং সময়ের মূল্য দেন তাহলে কঠিন কাজগুলো করা আপনার পক্ষে খুবই সহজ হবে।

০৩। স্বাস্থ্যকর খাবার প্রতিদিন ব্যায়াম করাঃ

ইংরেজিতে একটি প্রবাদ আছে আপনি যা খাবেন তাই হবেন। অর্থাৎ আপনি যদি স্বাস্থ্যকর খাবার খান তাহলে স্বাস্থ্য ভালো থাকবে। অস্বাস্থ্যকর খাবার খেলে স্বাস্থ্য খারাপ হবে। তাই সেনাবাহিনীর সদস্যরা খাবারের ব্যাপারে খুবই সচেতন। তারা প্রতিদিন পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ করে। ফলে তাদের সুস্বাস্থ্য বজায় থাকে। তাছাড়া প্রতিদিন শারীরিক ব্যয়াম করার ফলে তারা সাধারণত কঠিন রোগে আক্রান্ত হয় না। তাই জীবনে পরিবর্তন চাইলে আপনিও স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ এবং প্রতিদিন ব্যায়াম করুন।

০৪। নিজ লক্ষ্যে বিস্তারিত মনোযোগ দেওয়াঃ

আপনি কোন কাজ করতে ইচ্ছা প্রকাশ করলেন।আর যাচাই বাছাই ছাড়া বিস্তারিত না জেনে কাজ শুরু করে দিলেন। তাহলে নিশ্চিতভাবে অসফল হবেন। সেনাবাহিনীর সদস্যরা তা ভালোভাবেই জানে। তাই তারা কোন কাজ করতে গেলে নিজের লক্ষ্য ভালোভাবে স্থির করে নেন এবং লক্ষ্য সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেন। ফলে বেশিরভাগ সময় সফল হন। তাই সেনাবাহিনীর সদস্যদের নিয়ম মেনে নিজ লক্ষ্য সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে কাজ করুন সফল হবেন।

০৫। ইতিবাচক মনোভাব রাখাঃ

আমাদের সমাজে নেতিবাচক স্বভাবের মানুষের অভাব নেই। কোন কাজ করতে গেলে আগে থেকেই খারাপ দিকগুলো সম্পর্কে বেশি চিন্তা করেন। যার ফলে নিজের কাজ শুরুই করতে পারে না। অথচ সেনাবাহিনীর সদস্যরা খারাপ দিকগুলো চিন্তা করার সাথে সাথে ইতিবাচক দিকগুলো সম্পর্কেও চিন্তা করেন। যার ফলে তারা মানসিক দিক দিয়ে অনেকটাই শক্তিশালী থাকে। তাই কোন কাজ করার আগে সেনাবাহিনীর সদস্যদের মতই ইতিবাচক মনোভাব বজায় রাখুন জীবনে ভালো কিছু অর্জন করতে পারবেন।


Comment As:

Comment (0)