সেক্সি বডি-বয়েজ

যৌন শক্তি বৃদ্ধির খাবার কি ? জেনে রাখুন সহজলভ্য ০৮ টি খাবার সম্পর্কে।

সুখী, সুন্দর দাম্পত্য জীবনের জন্য একে অপরের প্রতি বিশ্বাস, শ্রদ্ধা ভালোবাসা জরুরি। তবে সাথে নিয়মিত সেক্সে লিপ্ত হওয়া গুরুত্বপূর্ণ। দাম্পত্য জীবনে প্রায় সবাই যৌন শক্তি বৃদ্ধি করতে চায়। তাই সেক্সের সময় বৃদ্ধির জন্য অনেকে পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ করেন। আবার অনেকে ঔষধ গ্রহণ করেন। তবে এটা অবশ্যই ঠিক যে যৌন শক্তি  ভালোর জন্য ঔষধের চেয়ে পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার অনেক উপকারী। স্থায়ী যৌন সমস্যা দূরীকরণেও পুষ্টিকর খাবার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

দুধঃ

দুধ এমন একটি খাদ্য যার মধ্যে সকল পুষ্টি উপাদান বিদ্যমান থাকে। তাছাড়া দুধ অত্যাধিক প্রোটিন-সমৃদ্ধ খাবার। আর প্রোটিন দউচ্চ খাদ্যের উৎস রয়েছে। যা শরীরে যথেষ্ট তাপ শক্তি সরবরাহ করতে পারে। পেশী এবং স্নায়ুর মাধ্যমে আরও সক্রিয়তা তৈরি করতে পারে। তাই যৌন সম্পর্কে নিয়মিত হওয়া সময় বৃদ্ধির জন্য দুধ খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে

ডিমঃ

সহজলভ্য উৎকৃষ্ট খাবারের মধ্যে দুধের পরেই ডিমের অবস্থান। আমাদের দেশে সেই প্রচীনকাল থেকে পুষ্টিকর খাবার হিসেবে ডিম দুধকে গুরুত্ব দেওয়া হয়। তাছাড়া ডিম হল উর্বরতা পুনর্জন্মের প্রতীক।ডিম হরমোনের মাত্রার ভারসাম্য বজায় রাখে। স্ট্রেসের বিরুদ্ধে লড়াই করে। এই খাবারটি স্বাভাবিক ভাবেই যৌন শক্তি বৃদ্ধি করে সেক্সের সময় বাড়ায়।

কলাঃ

শরীরের সুস্থতার জন্য আমরা বিভিন্ন ধরনের ফলমূল গ্রহণ করি। অনেক সময় যা আমাদের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে। কিন্তু কলা খুবই সহজলভ্য খাবার। এটি যৌন শক্তি বৃদ্ধির জন্য বিস্ময়কর ফল দেয়। কলার পটাসিয়াম ভিটামিন বি শরীরে শক্তির মাত্রা বাড়ায়।তাছাড়া কলায় ব্রোমেলিন নামক একটি এনজাইম থাকে। যা যৌন শক্তি বাড়ায় এবং পুরুষদের পুরুষত্বহীনতার চিকিৎসা করে।

ঝিনুকঃ

পাহাড়ি আদিবাসীদেন অন্যতম চাহিদা সম্পন্ন খাবার ঝিনুক। ঝিনুক একটি প্রাকৃতিক অ্যাফ্রোডিসিয়াক, এবং ক্যাসানোভা। তাই তারা প্রতিদিন ঝিনুক খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করে। তবে সমতলে বসবাসকারীদের মধ্যে ঝিনুক খাবার হিসেবে গ্রহণ করা হয় না। যাই হোক ঝিনুক সেক্সে বৃদ্ধির জন্য ভালো খাবার হিসেবে প্রসিদ্ধ।

রসুনঃ

রসুন একটি ঔষধি গুণসম্পন্ন উদ্ভিদ। এটি যৌন শক্তি চিকিৎসায় ব্যাপক হারে ব্যবহৃত হয়। রসুনে অ্যালিসিন রয়েছে যা যৌন অঙ্গে রক্ত ​​​​প্রবাহ বাড়ায়। তাই নিয়মিত খালি পেটে কয়েক খোয়া রসুন সেবন করতে পারেন।তাছাড়া মধুর সাথে রসুন সেবনে যৌন শক্তি বৃদ্ধির সহায়তা করে।

অশ্বগন্ধা জিনসেংঃ

অশ্বগন্ধা যৌন শক্তি বাড়াতে খুবই জনপ্রিয় খাবার সেক্সে বৃদ্ধির খাবার হিসেবে সবসময় এই আয়ুর্বেদিক ওষুধ অন্তর্ভুক্ত থাকে। জিনসেং রুট যৌনশক্তির বুস্টার হিসাবে ব্যাপকভাবে পরিচিত। এটি ব্লাড সুগার কমাতে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতেও ব্যবহৃত হয়।

এলাচঃ

এলাচ সেক্সের জন্য উপকারী। এলাচ তেল ম্যাসাজ রোমান্টিকতা বৃদ্ধি করে। এতে সিনিওল রয়েছে যা পুরুষত্বহীনতার চিকিৎসা করে এবং যৌন আগ্রহ বাড়ায়।

চকোলেটঃ

চকলেট একটি সুপরিচিত কামোদ্দীপক। যা একটি প্রাকৃতিক কামশক্তি বৃদ্ধিকারী।  চকোলেটে রয়েছে ফেনাইলথাইলামাইন, এমন একটি রাসায়নিক যা যৌন অনুভূতি বৃদ্ধি করে।


Comment As:

Comment (0)