মানচিত্র

মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কয়টি ও কি কি? সেক্টর কমান্ডারদের নাম ও তালিকা।

বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের জন্য ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ কালো রাত হিসেবে চিহ্নিত সেদিন রাতে জান্তা বাহিনী এদেশের নিরস্ত্র মানুষের উপর ঝাপিয়ে পড়ে যার প্রেক্ষিতে মুক্তিযুদ্ধের শুরু হয়। তৎকালীন সময়ে মুক্তিযুদ্ধের সুবিধার্থে সমগ্র দেশকে কয়েকটি সেক্টর ভাগ করা হয়।

মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কয়টি কি কি? সেক্টর কমান্ডারদের নাম তালিকাঃ-

১৯৭১ সালে পূর্ব পাকিস্তান বর্তমান বাংলাদেশে ১১ টি সেক্টর করা হয়। মুক্তিযুদ্ধের সময় সেক্টরে ভাগ করার কিছু উদ্দেশ্য ছিল। তার মধ্যে অন্যতম হল মুক্তিযুদ্ধ সুশৃঙ্খল ভাবে পরিচালনা করা। কারণ মুক্তিযুদ্ধ শুরুর কিছু দিনের মধ্যেই যুদ্ধে শৃঙ্খলার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করা হয়। ফলশ্রুতিতে সেক্টর সাব-সেক্টর গঠন করা হয়। সেক্টর সাব-সেক্টরের কমান্ডারদের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

০১। চট্রগ্রাম পার্বত্য চট্টগ্রাম নিয়ে সেক্টর ০১ গঠন করা হয়। সেক্টর কমান্ডার মেজর জিয়াউর রহমান, ক্যাপ্টেন রফিকুল ইসলাম।

০২। নোয়াখালী জেলা, কুমিল্লা জেলার আখাউড়া, ফরিদপুর ঢাকার অংশ নিয়ে সেক্টর ০২। মেজর খালেদ মোশারফ, মেজর এটিএম হায়দার।

০৩। সিলেট জেলার হবিগঞ্জ মহকুমার, কিশোরগঞ্জ মহকুমার,আখাউড়া ভৈরব রেললাইন। উত্তর পূর্ব দিকে কুমিল্লা ঢাকা জেলার অংশ বিশেষ ছিল সেক্টর ০৩ এর এলাকা। মেজর কে এম শফিউল্লাহমেজর এন এম. নুরুজ্জামান।

০৪। সিলেট জেলার পূর্বাঞ্চল খোয়াই শায়েস্তাগঞ্জ রেল লাইন বাদে, উত্তর দিকে সিলেট ডাউকি কি সড়ক পর্যন্ত সেক্টর ০৪ এর আওতাধীন। মেজর চিত্তরঞ্জন দত্ত।

০৫। সিলেট ডাউকি সড়ক থেকে সিলেট জেলার সমগ্র উত্তর পশ্চিমাঞ্চল সেক্টর ০৫। মেজর মীর শওকত আলী।

০৬। সমগ্র রংপুর জেলা দিনাজপুর জেলার ঠাকুরগাঁও মহকুমা সেক্টর ০৬। উইং কমান্ডার মোহাম্মদ খাদেমুল বাশার।

০৭। দিনাজপুর জেলার দক্ষিণাঞ্চল বগুড়া রাজশাহী পাবনা জেলা সেক্টর ০৭। মেজর নাজমুল হক, মেজর কামরুজ্জামান।

০৮। সেক্টর ০৮ সমগ্র কুষ্টিয়া, মাগুরা ঝিনাইদহ, যশোর জেলা ফরিদপুরের অধিকাংশ এলাকা। মেজর আবু ওসমান চৌধুরী, মেজর এম মঞ্জুর।

০৯। দৌলতপুর সাতক্ষীরা সড়ক থেকে খুলনার দক্ষিণাঞ্চল বরিশাল পটুয়াখালী জেলা সেক্টর ০৯। মেজর এম জলিল, মেজর জয়নুল আবেদীন

১০। সেক্টর ১০ নৌবাহিনীর ৫১৫ জন কমান্ডো নিয়ে গঠন করা হয়। এই সেক্টরের কোন নির্দিষ্ট এলাকা ছিল না। সমগ্র বাংলাদেশে তারা অপারেশন পরিচালনা করত। মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক এই সেক্টরের দায়িত্বে ছিল।

১১। সেক্টর ১১ কিশোরগঞ্জ মহকুমা বাদে সমগ্র ময়মনসিংহ টাঙ্গাইল জেলা এবং নগরবাড়ি আরিচা থেকে ফুলছড়ি বাহাদুরাবদ পর্যন্ত। মেজর জিয়াউর রহমান, মেজর আবু তাহের, স্কোয়াড্রন লিডার এম হামিদুল্লাহ খান।

তথ্যসূত্রঃ উইকিপিডিয়া


Comment As:

Comment (0)