পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কিভাবে করবেন (বিস্তারিত)

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কিঃ

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কিভাবে করবেন বিস্তারিত জানার আগে জানা প্রয়োজন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কি? আপনি যদি কোন কারণে দেশের বাইরে যেতে চান তাহলে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর প্রয়োজন পড়বে। পুলিশ ক্লিয়ারেন্স হল আপনার নামে কোন মামলা নেই এই সম্পর্কে একটি প্রত্যয়নপত্র। অনেক সময় কোন অপরাধী পাসপোর্ট থাকার কারণে দেশের বাইরে পালিয়ে যায়। পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর মূল উদ্দেশ্য হলো কোন অপরাধী যাহাতে দেশের বাইরে যেতে না পারে তা নিশ্চিত করা।

কিভাবে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর জন্য আবেদন করবেনঃ

সরকার দেশের সাধারণ মানুষের ভোগান্তির কথা চিন্তা করে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স যাহাতে সহজে পাওয়া যায় তার জন্য অনলাইনে আবেদনের ব্যবস্থা করেছে। নিচে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স কিভাবে করবেন তার বিস্তারিত দেওয়া হল।

step-1

প্রথমেই গুগল অথবা গুগলে ক্রোম ব্রাউজারে
online police clearance লিখে সার্চ করবেন এবং লিংকে প্রবেশ করবেন। প্রথমেই আপনার মোবাইল ফোনের নাম্বার পাসওয়ার্ড দিয়ে একটি একাউন্ট তৈরি করবেন।

step-2

একাউন্ট তৈরি করার পর মোবাইল নাম্বার পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ ইন করবেন।
তারপর আবেদন করবেন। মনে রাখবেন আপনার আবেদনে সকল তথ্য পাসপোর্ট অনুযায়ী দিবেন। তথ্য পুরন করার সময় স্টার চিহ্নিত যে সকল স্থানে দেওয়া আছে সে সকল স্থানের তথ্য অবশ্যই পূরণ করতে হবে।

step-3

আবেদন পুরণ করার পর আপনাকে বিকাশ, নগদ, রকেট এর মাধ্যমে ৫০০ টাকা পেমেন্ট করতে হবে। পেমেন্ট করার পর অনলাইনে পেমেন্ট প্রদানের কপিটি যত্নসহকারে রাখবেন।সাধারণত যে দিন পেমেন্ট করবেন তার পরের দিন আপনার একাউন্টে পুনরায় প্রবেশ করে পেমেন্ট টি জমা দিতে পারবেন।

যে সকল কাগজপত্র অনলাইনে আবেদন করার সময় জমা দিতে হবেঃ

০১। ০১ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি (অবশ্যই লাগবে)
০২। পাসপোর্ট এর কপি। (অবশ্যই লাগবে)
০৩। এনআইডি কার্ড(অবশ্যই লাগবে)
০৪। জন্মনিবন্ধন সনদপত্র ( অবশ্যই লাগবে)
০৪। চেয়ারম্যান কর্তৃক প্রদত্ত নাগরিকত্ব সনদ।

পুলিশ কিভাবে তদন্ত করেঃ

আপনার আবেদন অনলাইনে সাবমিট করার / দিনের মধ্যে পাসপোর্টের প্রদত্ত ঠিকানা যে থানায় অবস্থিত সে থানায় অনলাইন চলে যাবে। থানার অফিসার ইনচার্জ  ক্লিয়ারেন্স টি   তদন্তের একজন পুলিশ অফিসার জন্য নিয়োগ করবেন। আপনার আবেদনে প্রদত্ত মোবাইল ফোনে কল দিয়ে তিনি যোগাযোগ করতে পারেন আবার অনেক সময় ফোন না দিয়েও তদন্ত করেন। তদন্তকারী পুলিশ অফিসার চাইলে  আপনিও আবেদন করার সময় যে কাগজপত্র সাবমিট করেছিলেন সে গুলো নিয়ে যাবেন। আপনার কাগজপত্র সঠিক মামলা না থাকলে  তদন্তকারী পুলিশ অফিসার  আপনার আবেদনটি পরবর্তী কার্যক্রমের জন্য পাঠিয়ে দেবেন। ক্ষেত্রে আপনার কোন কিছু করার দরকার নেই। অবশ্যই  -১০ দিনের মধ্যে আপনি সংশ্লিষ্ট থানার জুনিয়র সেরেস্তার নিকট হইতে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সংগ্রহ করতে পারবেন।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স করতে কত টাকা লাগেঃ

আপনি যদি পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের আবেদন নিজে নিজে করতে পারেন তাহলে ৫০০ টাকা খরচ হবে। আর যদি অন্য কোন ব্যাক্তিকে দিয়ে আবেদন করেন তাহলে আলোচনার মাধ্যমে টাকার পরিমাণ নির্ধারণ করে নেবেন।

সমস্যা সমাধানঃ

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স এর আবেদন করার সময় কোন ভূল হলে সংশ্লিষ্ট থানায় যোগাযোগ করে সংশোধন করতে পারবেন। আপনার নামে কোন মামলা থাকলে তার নিষ্পত্তির কপি অথবা আদালত কর্তৃক প্রদত্ত খালাসের কপি তদন্তকারী পুলিশ অফিসারের নিকট উপস্থাপন করবেন।


Comment As:

Comment (0)