চুল পড়া বন্ধ করার উপায়

চুল পড়া বন্ধ করার উপায়, কার্যকরী ১২ টি খাবার।

চুল পড়া মহিলাদের জন্য অত্যন্ত সাধারণ বিষয়। কারণ আমাদের চুল তিনটি চক্রের মধ্য দিয়ে যায় যেমন চুল বৃদ্ধি, পরিবর্তন এবং ঝরা। তাই মহিলাদের দিনে প্রায় ২৫ থেকে ১০০ চুল পড়া স্বাভাবিক। তবে মহিলাদের ক্ষেত্রে এর অধিক চুল পড়া বন্ধ না করলে বা বন্ধ করার উপায় না জানলে উদ্বেগের কারণ হতে পারে।

তাই অন্যন্য সমস্যার মত গুরুতর হওয়ার আগে চুল পড়া বন্ধ করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। তবে আগে জেনে নেওয়া দরকার কী কারণে চুল পড়েসাধারণত লাইফস্টাইল, ডায়েট, স্ট্রেস, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়া, অনিয়মিত খাদ্য গ্রহণ, থাইরয়েড সমস্যা এমনকি হরমোনের পরিবর্তন সহ অনেক কিছুর কারণে চুল পড়তে পারে।

তবে কারণটি চিকিৎসা বা জেনেটিক না হলে, চুল পড়া বন্ধ করার জন্য আপনার চুলের পুষ্টি বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। এর জন্য সুষম খাদ্য গ্রহণ করা যেতে পারে। এটি নিশ্চিত করলে আপনার চুল শিকড় থেকে মজবুত হবে। তাই চুল পড়া বন্ধ করার উপায় হিসেবে সুষম খাদ্য গ্রহণ করা উচিত।

০১। ডিমঃ

ডিম প্রোটিন এবং বায়োটিনের অন্যতম উৎস। উভয়ই চুলের শক্তি বাড়ায়। প্রকৃতপক্ষে প্রোটিন আপনার চুলের বিল্ডিং ব্লকের মতো। যে কারণে চুল পড়ার সাথে এর অভাব সবসময়ই জড়িত। কেরাটিন তৈরি করতে বায়োটিন অপরিহার্য, যা এক ধরনের চুলের প্রোটিনও। তাই খাদ্যে প্রতিদিন ডিম রাখা চুল পড়া বন্ধ করার জন্য খুবই সহায়ক হবে।

০২। গাজরঃ

গাজর কেবল আপনার চোখের জন্য নয়, আপনার চুলের প্রয়োজনীয় ভিটামিন -এর নিখুঁত উৎস। এগুলি মাথার ত্বকের জন্য অত্যন্ত পুষ্টিকর এবং আপনার চুলকে শিকড পর্যন্ত ময়েশ্চারাইজ রাখতে অনেক দূর এগিয়ে যায়। যা চুল পড়ার জন্য গ্রীষ্মকালীন ডায়েটের জন্যও সেরা হতে পারে।

 ০৩। ওটসঃ

এতে আয়রন, জিঙ্ক এবং ওমেগা - ফ্যাটি অ্যাসিডের মতো প্রয়োজনীয় পুষ্টির উপাদান বেশি রয়েছে। এটি ত্বকের পাশাপাশি চুলের স্বাস্থ্য বজায় রাখার জন্য প্রয়োজনীয়। সপ্তাহে কয়েকবার প্রাতঃরাশের জন্য ওটস খেতে পারেন, যাতে আপনার চুল প্রয়োজনীয় সমস্ত পুষ্টি পাবে।

০৪। পালং শাকঃ

ফোলেট, আয়রন, ভিটামিন এবং ভিটামিন সি এর মতো ভিটামিন এবং পুষ্টিগুণে ভরপুর, যা চুলের বৃদ্ধির জন্য প্রয়োজনীয়। পালং শাক একটি অপরিহার্য খাবার যদি আপনি চুল পড়া রোধ করতে চান।  আসলে এটি আয়রনের একটি দুর্দান্ত উৎস।

০৫। ছাঁতুঃ

আপনার চুল যদি পাতলা, শুষ্ক বা বিবর্ণ হয়, তাহলে এর কারণ হতে পারে আয়রনের ঘাটতি। আপনার ছাঁতু খাওয়া উচিত। কারণ সেগুলি আয়রনের একটি ভালো উৎস। আপনি এগুলিকে মধ্যাহ্নের জলখাবার হিসাবে বা প্রাতঃরাশের সময় দুর্দান্ত চুলের ঘনত্ব এবং শক্তির জন্য খেতে পারেন।

 ০৬। মিষ্টি আলুঃ

মিষ্টি আলু ভিটামিন শোষণের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। কারণ তারা বিটা-ক্যারোটিন সমৃদ্ধ। চুলের ঘনত্ব এবং সিবাম উৎপাদনের জন্য ভিটামিন অপরিহার্য। আপনার চুলকে স্বাস্থ্যকর এবং প্রাকৃতিকভাবে ময়শ্চারাইজড রাখতে সহায়তা করে।

০৭। দুগ্ধজাত পণ্যঃ

চুলের বৃদ্ধির জন্য ক্যালসিয়াম একটি অত্যন্ত প্রয়োজনীয় খনিজ। কারণ এতে দুটি প্রোটিন উৎস রয়েছে, হুই এবং কেসিন। আপনার খাবারের তালিকায় দই বা কুটির পনির যোগ করুন।  আখরোট এবং ফ্ল্যাক্সসিডের মতো কয়েকটি বাদাম মেশানোও আপনাকে জিঙ্ক এবং ওমেগা - ফ্যাটি অ্যাসিডের মতো পুষ্টি দিতে পারে।

০৮। অ্যাভোকাডোঃ

ভিটামিন চুলের শক্ত করার পাশাপাশি বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। অ্যাভোকাডো হল ভিটামিন -এর প্রধান উৎস। আসলে একটি মাঝারি আকারের অ্যাভোকাডো দৈনিক ভিটামিন চাহিদার প্রায় ২১% পূরণ করে। ভিটামিন ফ্যাটি অ্যাসিডের একটি বড় উৎস। যার অভাব চুল পড়ার সাথে যুক্ত। চুল পড়া বন্ধ করার জন্য স্বাস্থ্যকর অ্যাভোকাডো গ্রহণ করুন।

০৯। বীজঃ

চুল পড়া রোধে সবচেয়ে কার্যকরী একটি খাবার। বীজ ভিটামিন , জিঙ্ক এবং সেলেনিয়ামে ভরপুর। আসলে, এক আউন্স সূর্যমুখী বীজ আপনার দৈনিক ভিটামিন চাহিদার প্রায় ৫০% পূরণ করে। অন্যান্য বীজ যেমন ফ্ল্যাক্সসিড এবং চিয়া বীজেও ওমেগা - ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে। যার সবগুলোই চুল পড়া বন্ধ করার কার্যকরী ডায়েট তৈরি করে।

 ১০। মটরশুটিঃ

প্রোটিনের সবচেয়ে ধনী উদ্ভিদ-ভিত্তিক উৎস গুলির মধ্যে একটি মটরশুটি, প্রচুর জিঙ্ক, আয়রন বায়োটিন এবং ফোলেটে পরিপূর্ণ। আর সুস্থ সুন্দর চুলের অন্য তম প্রধান উপাদান প্রোটিন।

১১। মাংসঃ

চুল পড়া বন্ধ করার জন্য প্রোটিনের পাশাপাশি আয়রনের জন্য মাংসের মতো বিকল্প কিছু নেই।  প্রকৃতপক্ষে লাল মাংস লৌহ অত্যন্ত সমৃদ্ধ, এইভাবে লাল রক্তকণিকাগুলিকে চুলের ফলিকল সহ শরীরের সমস্ত অংশে দক্ষতার সাথে অক্সিজেন সরবরাহ করতে সহায়তা করে।

১২। মসুর ডাল এবং ছোলাঃ

ফলিক অ্যাসিড, মসুর ডাল এবং ছোলা উভয়ই অত্যন্ত সমৃদ্ধ হওয়ায় আপনার শরীরকে আরও লোহিত রক্তকণিকা তৈরি করতে সাহায্য করে। এইভাবে, চুল বৃদ্ধি এবং শক্তি জন্য মসুর ডাল এবং ছোলা অপরিহার্য।

যদিও এই খাবারগুলির কোনওটিরই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। তবে মাঝারি পরিমাণে সেগুলি খাওয়াই ভাল।  ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য চুল পড়া এড়াতে এবং বহুমুখী ডায়েটের পরিকল্পনা করতে হবে। এর সাথে আপনাকে প্রচুর প্রোটিন এবং ভিটামিন সহ সঠিক চুলের পণ্য ব্যবহার করতে হবে। 


Comment As:

Comment (0)