আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর উপায়

আত্মবিশ্বাস কি? আত্মবিশ্বাসী হওয়ার উপায় জেনে রাখুন।

আত্মবিশ্বাস কিঃ

আত্মবিশ্বাস কি? আত্মবিশ্বাস হলো নিজের প্রতি বিশ্বাস আস্থা। এটি মানুষের বড় একটি গুণ। আত্মবিশ্বাসী ব্যাক্তির জীবনে সফল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। অনেক ব্যাক্তির মধ্যেই আত্মবিশ্বাসের অভাব থাকে। যে ব্যাক্তি  আত্মবিশ্বাসী নয় তার সফল হওয়ার সম্ভাবনা কম। তবে আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি করা সম্ভব। তাই আত্মবিশ্বাসী হওয়ার উপায় জেনে রাখা ভালো।

আত্মবিশ্বাসহীনতার লক্ষণঃ

আত্মবিশ্বাসের অভাব নেই এমন কাউকে খুঁজে পাওয়া সহজ নয়। প্রায় সবার কম বেশি আত্মবিশ্বাসের ঘাটতি রয়েছে। অনেক লোক রয়েছে যাদের আত্মবিশ্বাসী মনে হয়। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে তাদের আত্মবিশ্বাসের অভাব রয়েছে। যাই হোক কিছু লক্ষণে কম আত্মবিশ্বাসী লোকদের বাছাই করা সম্ভব।

দুশ্চিন্তা করাঃ

কম আত্মবিশ্বাসী ব্যাক্তি প্রায় সময় অতিরিক্ত দুশ্চিন্তা করে। সেটা হতে পারে কারণ ছাড়াই অথবা ছোটঘাট বিষয়ে। তারা দুশ্চিন্তার সমাধান না করে অতিরিক্ত চিন্তা করে মানসিক ভাবে আরো দুর্বল হয়ে পড়ে।

চ্যালেঞ্জ এড়ানোঃ

যাদের আত্মবিশ্বাস নেই তারা প্রায়শই নতুন জিনিস চেষ্টা করতে ইচ্ছুক নয়। তারা নতুন কিছু করার চ্যালেঞ্জ এড়িয়ে চলে। কারণ তারা তাদের সফল হওয়ার ক্ষমতার উপর আস্থা রাখে না।

সামাজিক পরিস্থিতি এড়িয়ে চলাঃ

সামাজিক পরিস্থিতি এড়িয়ে চলা কম আত্মবিশ্বাসী লোকদের আরেকটি লক্ষণ। তারা সামাজিক অনুষ্ঠান, মেলামেশা, যোগাযোগ এড়িয়ে চলে। ফলে আরো আত্মাবিশ্বাসহীন হয়ে পড়ে।

অন্যরা কি ভাবছে তা নিয়ে উদ্বিগ্নঃ

যাদের আত্মসম্মান কম তারা প্রায়শই চিন্তা করে যে অন্যরা তাদের কীভাবে বিচার করছে। তারা তাদের নিজের সম্পর্কে অন্যের অনুভূতি চিন্তাধারাকে বেশি গুরুত্ব দেয়।

আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর উপায়ঃ

আপনি কি মনে করেন যে আপনার আত্মবিশ্বাস বাড়ানো প্রয়োজন ? তাহলে আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর জন্য কিছু উপায় রয়েছে।

স্ব-যত্ন অনুশীলন করুনঃ

আত্মবিশ্বাস এবং আত্ম-যত্ন ঘনিষ্ঠভাবে সম্পর্ক যুক্ত।আপনি যদি আত্মবিশ্বাস বাড়াতে চান তাহলে নিজের যত্ন নিন। তা হতে পারে নিয়মিত ব্যয়াম, সঠিক সময়ে খাদ্য গ্রহণ, রুচিশীল পোষাক পরিধান করার মাধ্যমে।  মননশীলতা এবং কৃতজ্ঞতার মতো অভ্যাসগুলিও মানসিক চাপ কমাতে আবেগ নিয়ন্ত্রণের উন্নতি করতে সাহায্য করতে পারে।

ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি রাখুনঃ

সবকিছু নেতিবাচক দৃষ্টিতে দেখার মন মানসিকতা ত্যাগ করতে হবে। ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি বৃদ্ধি করতে হবে। নেতিবাচক চিন্তাধারা সম্পর্ক আত্মবিশ্বাস কমানোর জন্য যথেষ্ট। তাছাড়া কোন কাজ কিংবা ব্যাক্তি সম্পর্কে ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি রাখুন। দেখবেন আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে যুক্তি সঙ্গত আত্মবিশ্বাস রাখতে হবে।অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসের ফলে বড় ধরনের ক্ষতি হতে পারে।

ইতিবাচক সম্পর্ক গড়ে তুলুনঃ

অনেক লোক রয়েছে যারা নেতিবাচক এবং নিচে নামানোর চেষ্টা করে। তারা আত্মবিশ্বাস নষ্ট করার জন্য যথেষ্ট ভূমিকা পালন করে। তাই সেসব ব্যক্তিদের সাথে কম সময় কাটানোর চেষ্টা করুন। যারা আপনার প্রশংসা করেন তাদের সাথে সম্পর্ক গড়ে তোলার লক্ষ্য রাখুন। তাদের ইতিবাচকতা আপনাকে আরও আত্মবিশ্বাসী বোধ করতে সাহায্য করতে পারে।

চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করুনঃ 

আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর সবচাইতে বড় উপায় হল চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করা। আপনি যত চ্যালেঞ্জ এড়িয়ে চলবেন আত্মবিশ্বাস তত কমে যাবে। তাই চ্যালেঞ্জ নিন। যে কাজ করতে ভয় পান তা এড়িয়ে যাবেন না। তার সম্মুখীন হন। দেখবেন ক্রমশ আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি পেয়েছে।

আত্মবিশ্বাস হলো মনের একটি নেতিবাচক দিক। আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর জন্য ইতিবাচক শক্তি বৃদ্ধি করতে হবে। আর ইতিবাচক শক্তি বৃদ্ধির আরেকটি পরিক্ষিত পন্থা হল। ইতিবাচক চিন্তা বৃদ্ধি করা। প্রতিদিন সকালে আমি পারব, আমি আত্মবিশ্বাসী, আমি জ্ঞানী, আমি সাহসী,আমি সবাইকে ভালোবাসি একাধিকবার মনে মনে বা উচ্চস্বরে উচ্চারণ করতে পারেন। তাতে মনের ইতিবাচক শক্তি বৃদ্ধি পাবে।


Comment As:

Comment (0)