হস্তমৈথুন করার ক্ষতি

অতিরিক্ত হস্তমৈথুন করার ০৫ টি ক্ষতিকর দিক!

হস্তমৈথুন হল স্ব-আন্দোলিত হওয়ার সহজ প্রক্রিয়া। হস্তমৈথুন সপ্তাহে / বার করলে সমস্যা নেই। কিন্তু অতিরিক্ত হস্তমৈথুন করার ফলে বিভিন্ন ধরনের শারীরিক মানসিক সমস্যা দেখা দিতে পারে। অনেকের অতিরিক্ত হস্তমৈথুন করার মত বদঅভ্যাস রয়েছে। অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের ফলে উদ্বেগ, ক্লান্তি, শারিরীক দুর্বলতাসহ নানা ধরনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে।

০১. লিঙ্গ সংকোচনঃ

যাদের শৈশব থেকে হস্তমৈথুন এর অভ্যাস গড়ে তুলে তাদের সাবধান হওয়া উচিত। কারণ অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের ফলে শরীর বৃদ্ধির হরমোনের পরিমাণ কমে যায়। এটি লিঙ্গকে বড় পরিপূর্ণ হতে বাধা দেয়। যার ফলে লিঙ্গ ছোট হয়ে যেতে পারে।

০২. অকাল বীর্যপাতঃ

অতিরিক্ত হস্তমৈথুন এর ফলে অকাল বীর্যপাত হতে পারে। কারণ এর ফলে শরীরে টেস্টোস্টেরন এবং অন্যান্য নিউরোট্রান্সমিটার যেমন ডোপামিন এবং সেরোটোনিন সহ হরমোনের কমিয়ে দিয়ে দুর্বল প্যারাসিমপ্যাথেটিক স্নায়ুতন্ত্রের দিকে পরিচালিত করে। এর ফলে দুর্বল ইরেকশন, স্পার্ম লিকেজ এবং অকাল বীর্যপাত হয়।

০৩. দীর্ঘস্থায়ী ক্লান্তিঃ

হস্তমৈথুন শরীরে স্টেরয়েড হরমোন, কর্টিসল উৎপাদনে প্ররোচিত করে। তাই শরীর দুর্বল হয়ে পড়ে। তাছাড়া অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের ফলে চেহারায় বার্ধক্যের চাপ ফুটে উঠতে পারে। এটি বিপাকের হার বাড়ায় এবং তাই ক্লান্তি এবং ক্লান্তির অনুভূতি হয়।

 ০৪. পিঠে ব্যথা বা অস্বস্তিঃ

অতিরিক্ত হস্তমৈথুন অক্সিটোসিন, DHEA, টেস্টোস্টেরন এবং DHT-এর উৎপাদন হ্রাস করে।  এই নিউরোকেমিক্যালের হ্রাস প্রদাহজনক হরমোন প্রোস্টাগ্ল্যান্ডিন E2 নিঃসরণ করে, ফলে পিঠের নিম্ন অংশে ব্যথার সৃষ্টি করতে পারে।

 ০৫. চুল পড়াঃ

 হরমোন এবং নিউরোট্রান্সমিটারের বিক্রিয়াও শরীরে প্রোল্যাক্টিন এবং ডিএইচইএ-এর উচ্চ মাত্রার দিকে নিয়ে যায়, যার ফলে চুল পড়ে। অনেকের মাথায় চুল সম্পূর্ণ পড়ে যাওয়ার আশংকা দেখা দেয়।

অতিরিক্ত হস্তমৈথুনের অনেক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে। আপনি যদি মনে করেন অতিরিক্ত হস্তমৈথুন এর ফলে শারিরীক সমস্যা দেখা দিচ্ছে তাহলে অতিসত্বর একজন যৌন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। কারণ চিকিৎসার অবহেলার জন্য আপনার সমস্যাটি ব্যাপক আকার ধারণ করতে পারে।


Comment As:

Comment (0)